বিশেষ সংবাদ:

কবি মেহেরুন্নেসার ৭৫তম জন্মবার্ষিকী আজ

Logoআপডেট: রবিবার, ২০ আগস্ট, ২০১৭

ফারুক হোসেন শিহাব

স্বাধীনতার ৪৭ বছরে এসেও বরাবরের মতো উপেক্ষিত বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে প্রথম শহিদ মহিলা কবি মেহেরুন্নেসা। মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস থেকে বিলীনপ্রায় মেহেরুন্নেসার অবদান আত্মত্যাগ ও কর্মকাণ্ড। অথচ মহান মুক্তিযুদ্ধে ছিল তার অনন্য অবদান।

আজ ২০ আগস্ট রোববার মুক্তিযুদ্ধে প্রথম শহিদ মহিলা কবি মেহেরুন্নেসার ৭৫তম জন্মদিন। ১৯৪২ সালের এইদিনে কলকাতার খিদিরপুরে প্রতিভাধর এই কবি জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৫২ সালে মাত্র দশ বছর বয়স থেকেই তার কবিপ্রতিভার প্রকাশ ঘটে। মেহেরুন্নেসা ১৯৬৯-এর গণ অভ্যুত্থানে সংগ্রাম কমিটির অন্যতম সদস্য ছিলেন এবং কাজী রোজীর নেতৃত্বাধীন তৎকালীন অ্যাকশন কমিটির সক্রিয় সদস্য ছিলেন।
১৯৭০ সালের নির্বাচনে বঙ্গবন্ধুর শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বাধীন আওয়ামী লীগের নির্বাচনি এজেন্ট হিসেবে মিরপুরে দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের প্রাক্কালে ৭মার্চ রেসকোর্স ময়দানে বঙ্গবন্ধুর অবিস্মরণীয় সমাবেশে বন্ধুদের নিয়ে অংশগ্রহণ করেন। ২৩ মার্চ ১৯৭১ সালে মিরপুরের নিজবাড়িতে বাংলাদেশের মানচিত্র খচিত পতাকা উত্তোলন করেন। এই অপরাধে ২৭ মার্চ তাকে সপরিবারে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়। আর তিনি হন বাংলাদেশের প্রথম শহিদ মহিলা কবি। দেশের জন্য তার এই আত্মদান আজ যেন জাতি ভুলতে বসেছে। কোথাও সেভাবে লিপবদ্ধ নেই দেশমাতৃকার এই বিপ্লবী কবির অনবদ্য অবদান।

এক অপার দায়বোধ থেকে সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন স্বপ্নকলা আজ ২০ আগস্ট ২০১৭ রোজ রোববার দুপর ২টা থেকে রাজধানীর শাহাবাগস্থ গণগ্রন্থাগার সেমিনার কক্ষে (নীচতলায়) উদযাপন করবে মেহেরুন্নেসার ৭৫তম জন্মবার্ষিকী।
মেহেরুন্নেসার উপর ডকুফিকশন চলচ্চিত্র ‘শহিদ কবি মেহেরুন্নেসা’, মেহেরুন্নেসার উপর একক নাট্য ও দুর্লভ চিত্র প্রদর্শনী, মেহেরুন্নেসার লেখা কবিতা আবৃত্তি প্রতিযোগিতা, আলোচনা সভা, র‌্যালি ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান নিয়ে সাজানো হয়েছে বর্ণাঢ্য এ আয়োজন।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন কবি মেহেরুন্নেসার বড় বোন মোমেনা খাতুন, বান্ধবী সংসদ সদস্য কবি কাজী রোজী, স্বাধীন বাংলার কণ্ঠযোদ্ধা মনোরঞ্জন ঘোষাল, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের অধ্যাপক আবুল কাসেম ফজলুল হক, গ্রিন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক গোলাম সামদানী ফকির, বাংলাদেশের প্রথম মহিলা এভারেস্ট বিজয়ী নিশাত মজুমদার, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিল্ম, টেলিভিশন বিভাগের চেয়ারম্যান জুনায়েদ আহম্মেদ হালিম, গ্রিন বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিল্ম, টেলিভিশন অ্যান্ড ডিজিটাল মিডিয়া বিভাগের চেয়ারম্যান ড. আফজাল হোসেন খান এবং স্বপ্নকলার পরিচালকবৃন্দ।