বিশেষ সংবাদ:

১২ ব্যক্তি ও এক প্রতিষ্ঠানকে স্বাধীনতা পুরস্কারের জন্য মনোনীত

Logoআপডেট: রবিবার, ১০ মার্চ, ২০১৯

এবি প্রতিবেদক
জাতীয় পর্যায়ে গৌরবোজ্জ্বল ও কৃতিত্বপূর্ণ অবদানের স্বীকৃতি-সরূপ ১২ জন বিশিষ্ট ব্যক্তি ও একটি প্রতিষ্ঠান পেতে যাচ্ছেন ২০১৯ সালের রাষ্ট্রীয় সর্বোচ্চ সম্মান স্বাধীনতা পুরস্কার। এবার সাতটি বিভাগে দেশের এই কীর্তিমান ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে তাৎপর্যবহ এ পদকে ভূষিত করেছে সরকার।

আজ ১০ মার্চ রোববার দুপুরে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের পক্ষ থেকে এক বিজ্ঞপ্তিতে স্বাধীনতা পুরস্কারের জন্য মনোনীতদের তালিকা প্রকাশ করেছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব (কমিটি ও অর্থনৈতিক) মোসামাৎ নাসিমা বেগম স্বাক্ষরিত প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, জাতীয় পর্যায়ে গৌরবোজ্জ্বল ও কৃতিত্বপূর্ণ অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে এবছর ১২ ব্যক্তি ও একটি প্রতিষ্ঠানকে এ পুরস্কারের জন্য চূড়ান্ত মনোনীত করা হয়েছে।

স্বাধীনতা ‍ও মুক্তিযুদ্ধে অবদানের জন্য এবার এ সম্মাননা পাচ্ছেন শহীদ বুদ্ধিজীবী মোফাজ্জল হায়দার চৌধুরী (মরণোত্তর), শহীদ এটিএম জাফর আলম (মরণোত্তর), আ ক ম মোজাম্মেল হক, ইঞ্জি. মোশাররফ হোসেন, ডা. কাজী মিসবাহুন নাহার, মরহুম আবদুল খালেক (মরণোত্তর)।

এ ছাড়া মরহুম অধ্যাপক মোহাম্মদ খালেদ (মরণোত্তর), ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ডা. নুরুন্নাহার ফাতেমা বেগম, ড. কাজী খলীকুজ্জমান আহমদ, মুর্তজা বশীর, হাসান আজিজুল হক, অধ্যাপক ড. হাসিনা খান ও একটি প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ পরমাণু কৃষি গবেষণা ইন্সটিটিউট।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী ২৫ মার্চ বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলনকেন্দ্রে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ কর্তৃক আয়োজিত অনুষ্ঠানে মনোনীত বিশিষ্ট ব্যক্তি এবং প্রতিষ্ঠানকে এ পুরস্কার তুলে দেবেন।

এটি দেশের সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় পুরস্কার। ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে ১৯৭৭ সাল থেকে নিয়মিতভাবে প্রতিবছর এ পুরস্কার দিচ্ছে সরকার। স্বাধীনতা পদকের ক্ষেত্রে পুরস্কারপ্রাপ্ত ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানকে ১৮ ক্যারেট মানের পঞ্চাশ গ্রাম স্বর্ণের পদক, পদকের একটি রেপ্লিকা, ৩ লাখ টাকা ও একটি সম্মাননাপত্র দেয়া হয়।