বিশেষ সংবাদ:

নাটকপাড়ায় ‘জীবন ও রাজনৈতিক বাস্তবতা’ নিয়ে মুক্তিযুদ্ধ নাট্য উৎসব

Logoআপডেট: সোমবার, ১১ মার্চ, ২০১৯

এবি প্রতিবেদক

আলোচিত প্রযোজনা ‘রিজওয়ান’-এর পর আবারও নতুন নাটক নিয়ে মঞ্চে আসছেন দেশবরেণ্য নাট্যনির্দেশক সৈয়দ জামিল আহমেদ। চলতি স্বাধীনতার মাস মার্চে মঞ্চস্থ হবে তার নির্দেশিত মুক্তিযুদ্ধনির্ভর নাটক ‘জীবন ও রাজনৈতিক বাস্তবতা’।

শহীদুল জহিরের মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক উপন্যাস ‘জীবন ও রাজনৈতিক বাস্তবতা’ অবলম্বনে নির্মিত হয়েছে ব্যতিক্রমী এই নাট্য প্রযোজনা। নাটকটি মঞ্চে আনছে প্রযোজনাভিত্তিক নবগঠিত নাট্যসংগঠন স্পর্ধা।

আগামী ১৪ মার্চ বৃহস্পতিবার নাটকটির উদ্বোধনী প্রদর্শনীর মধ্য দিয়ে মঞ্চাঙ্গনে যাত্রা করবে স্পর্ধা। প্রযোজনাটি পরিকল্পনা ও নির্দেশনা দিয়েছেন সৈয়দ জামিল আহমেদ। ৪৮তম স্বাধীনতা দিবসকে কেন্দ্র করে অনুষ্ঠিতব্য সপ্তাহব্যাপী এ নাট্যযজ্ঞের শিরোনাম ‘মুক্তিযুদ্ধ নাট্য উৎসব’। নাটকটির মঞ্চায়নে সহযোগিতা করছে সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয় এবং বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি।

নাটকটি প্রসঙ্গে সৈয়দ জামিল আহমেদ বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধ ও পরবর্তী বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে যাদু বাস্তবতায় ‘জীবন ও রাজনৈতিক বাস্তবতা’ লিখেছিলেন শহীদুল জহির। আর প্রযোজনাটিতে মুক্তিযুদ্ধের বর্ণনাময় রূপায়ন শুধু নয় বরং মুক্তিযুদ্ধের অভিজ্ঞতার সঙ্গে যুক্ত হয়েছে পরবর্তী সময়ের চিত্র।’

তিনি আরো বলেন, ‘প্রকৃত অর্থে যুদ্ধটা কেমন ছিল এবং স্বাধীনতার বিরোধিতাকারীরা কিভাবে পরবর্তীতে পুনর্বাসিত হলো, সেসব বিষয় উঠে এসেছে ঘটনাপ্রবাহে। তুলে ধরা হয়েছে মুক্তিযুদ্ধে ক্ষতিগ্রস্তদের জীবনযাতনা। সব মিলিয়ে মুক্তিযুদ্ধের সঙ্গে বর্তমানের তীক্ষ্ণ বিশ্লেষণে এগিয়েছে কাহিনি। এতে পরিবর্তনশীল সত্যের পথ ধরে কাহিনির প্রতিরূপায়ণ ঘটেছে।’

১৪ মার্চ থেকে ২০ মার্চ সপ্তাহব্যাপী এই উৎসবে মোট ১১টি প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হবে। এর মধ্যে ১৫ থেকে ১৭ এবং ২০ মার্চ দুটি করে প্রদর্শনী। দুইটি প্রদর্শনীর দিনগুলোতে বিকেল সাড়ে তিনটায় প্রথম এবং সন্ধ্যা সাড়ে সাতটা দ্বিতীয় প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হবে। ১৭ মার্চ বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনে অনুষ্ঠিতব্য দু’টি প্রদর্শনী জাতির জনকের প্রতি উৎসর্গ করা হয়েছে। প্রায় দুই ঘণ্টা ব্যাপ্তির এ নাটকের টিকেটের দাম রাখা হয়েছে এক হাজার, ৫০০ ও ৩০০ টাকা। শিক্ষার্থীদের জন্য ১০০ টাকা। নাটকটিতে অভিনয় করছেন বিভিন্ন নাট্য সংগঠনের কর্মী এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

উল্লেখ্য, গত নভেম্বর ও ডিসেম্বরে মাসব্যাপী চারটি অভিনয় কর্মশালা আয়োজনের মধ্য দিয়ে এ নাটকের জন্য অভিনেতা নির্বাচনে করে নাট্য সংগঠন স্পর্ধা। যেখানে দেশের বিভিন্ন নাট্য সংগঠন ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৬৬ নাট্যকর্মী অংশ নেন। কর্মশালা থেকে নির্বাচিত ২০ অভিনেতা অংশ নিচ্ছেন নাট্যপ্রযোজনায়। তাদের মধ্যে অন্যতম হচ্ছে- কৌশিক, তাবিন, শর্মী, মহসিনা আক্তার, প্রদ্যুৎ, বিপ্লব, সোহেল রানা, নোভায়রা, সজীব, শোভন, শরীফ ও সোয়েরি।

‘রিজওয়ান’ নাটকের সফলতার ধারাবাহিকতায় এ নাট্য সংগঠনটি গড়ে তোলা হয় বলে জানা গেছে। সংগঠনের উপদেষ্টা হিসেবে আছেন অধ্যাপক সৈয়দ জামিল আহমেদ। অন্যান্য স্থায়ী সদস্য হলেন মহসিনা আক্তার, সাইফুল ইসলাম মণ্ডল, মো. সোহেল রানা এবং মো. আবদুর রাহীম খান।