বিশেষ সংবাদ:

সোনা-রুপা মিলবে মানববর্জ্য থেকে!

Logoআপডেট: রবিবার, ২৯ মার্চ, ২০১৫

এবি ডেস্ক
মানববর্জ্য বিশেষভাবে পরিশোধন করে সোনা, রুপার মতো মূল্যবান উপাদান পাওয়া সম্ভব, যা ইলেকট্রনিকস ও সঙ্কর ধাতু হিসেবে ব্যবহার করা যাবে বলে মনে করছেন মার্কিন বিজ্ঞানীরা।

 

বর্তমানে গবেষকেরা মানববর্জ্য থেকে মূল্যবান ধাতু শনাক্ত করার এবং তা উদ্ধার করার উপায় নিয়ে গবেষণা চালিয়ে যাচ্ছেন।

 

সম্প্রতি, এএফপির এক খবরে এ তথ্য জানানো হয়েছে। গবেষকেরা দাবি করছেন, ইলেকট্রনিকসের কাজে ব্যবহৃত মূল্যবান ধাতুর জন্য খোঁড়াখুঁড়ি করার প্রয়োজন কমাবে তাঁদের এই উদ্ভাবন এবং পরিবেশে অনাকাঙ্ক্ষিত ধাতব ছড়িয়ে পড়া রোধ করবে।

 

মঙ্গলবার শেষে যুক্তরাষ্ট্রের ডেনভারে শুর” হওয়া আমেরিকান কেমিক্যাল সোসাইটির ২৪৯ তম ন্যাশনাল মিটিং অ্যান্ড এক্সপজিশনে গবেষণা বিষয়ে বিস্তারিত জানানো হয়েছে।


গবেষকেরা দাবি করেছেন, মানববর্জ্যে যে সোনার মতো মূল্যবান ধাতু রয়েছে তার মূল্য লাখ লাখ ডলার ছাড়িয়ে যাবে। মানববর্জ্য থেকে সোনা বের করা গেলে তা যেমন অর্থকরী হবে, তেমনি পরিবেশও বাঁচানো যাবে। সোনা উদ্ধারের প্রক্রিয়া সম্পর্কে বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, প্রাকৃতিক, জৈব ও রাসায়নিক এই তিনটি প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার পর পানি ও জৈব উপাদান পৃথক করা হবে।

 

সেই জৈব উপাদান থেকে মূল্যবান ধাতু সংগ্রহ করার কাজ করছেন স্মিথ ও তাঁর গবেষক দল।
এরই মধ্যে পরিশোধিত বর্জ্যের মধ্যে প্লাটিনাম, সোনা, র”পার মতো পদার্থ পাওয়া গেছে বলে বিজ্ঞানীরা দাবি করেছেন। ইলেকট্রন মাইক্রোস্কোপ ব্যবহার করে ক্ষুদ্র এই ধাতব কণাগুলোর অস্তিত্ব বের করা সম্ভব হয়েছে।