বিশেষ সংবাদ:

কেন সরে দাঁড়ালেন নানা পাটেকার!

Logoআপডেট: রবিবার, ১৪ অক্টোবর, ২০১৮

এবি ডেস্ক

দাপুটে অভিনয় দিয়ে বলিউডে নিজেকে অন্যধারার অভিনেতা হিসাবে জিইয়ে রেখেছেন নানা পাটেকার। কিন্তু অসুস্থতা কাটিয়ে উঠতে না উঠতেই বর্ষীয়ান এই অভিনেতার ভাগ্যে ভর করেছে অশনি। সম্প্রতি যৌন হেনস্থার অভিযোগে তার বিরুদ্ধে মুখ খুলে বি-টাউনে ঝড় তুললেন অভিনেত্রী তনুশ্রী দত্ত।

এ নিয়ে উপমহাদেশের সংবাদ মাধ্যমসহ পুরো নেট দুনিয়ায় বইছে নানা বিতর্ক ও সমালোচনার উত্তাপ। এমনি পরিস্থিতিতে অবশেষে ‘হাউজফুল ৪’ ছবি থেকে সরে দাঁড়ালেন নানা পাটেকার৷ তার ছেলে মালহার জানিয়েছেন, ‘সকলের যাতে সুবিধা হয় তাই জন্যই এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি৷ প্রযোজক এবং গোটা কাস্ট অ্যান্ড ক্রিউকে শুভেচ্ছা জানিয়ে ছবিটি থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন তিনি৷ এই মুহূর্তে এটাই সঠিক পথ হিসেবে বেছে নিয়েছেন তিনি৷’

নানা পাটেকরের বিরুদ্ধে ২০০৮ সালে ‘হর্ন ওকে প্লিজ’ ফিল্ম সেটে যৌন হেনস্থার অভিযোগ আনেন প্রাক্তন মিস ইন্ডিয়া৷ নানা ছাড়াও অভিযোগে উঠে আসে কোরিওগ্রাফার গণেশ আচারিয়া, পরিচালক রাকেশ সারাং ও প্রযোজক সামি সিদ্দিকির নাম৷ #MeToo-এর জেরে ২০০৮ সালের জল গড়িয়েছে ২০১৮-এ৷ তনুশ্রীর সেই অভিযোগের পুরনাবৃত্তিতে সাহস পেয়ে মুখ খুলছে অসংখ্য মহিলা৷

সম্প্রতি ওশিয়ারা পুলিশ স্টেশনে অভিযোগ দায়ের করার কয়েক ঘণ্টা আগে যৌন হেনস্তা কাণ্ডে নীরবতা ভাঙেন নানা পাটেকর৷ গোটা ঘটনাকে মিথ্যা বলে দাবি করেছিলেন এই প্রবীণ অভিনেতা৷ তিনি বলেছেন, ‘মিথ্যা মিথ্যাই থাকবে৷’ তবে তনুশ্রী নাকি নানার নার্কো টেস্টের দাবি করেছেন বলে জানা গিয়েছে৷

তনুশ্রীর দাবি ছিল ২০০৮ সালে ‘হর্ন ওকে প্লিজ’র সেটে নানা পাটেকার তাকে অসঙ্গতভাবে স্পর্শ করেন এবং কোরিওগ্রাফার গণেশকে উপদেশ দেন যাতে আইটেম সংয়ে তনুশ্রীর সঙ্গে বেশ কয়েকটি ঘনিষ্ঠ নাচের দৃশ্য ঢোকানো যায়। তনুশ্রী সরাসরি বারণ করে দিলে নানা তাকে মহারাষ্ট্র নবনির্মাণ সেনার মাধ্যমে আক্রমণ করান বলে অভিযোগ রয়েছে।

সেই ঘটনার জেরে তনুশ্রী সেই সময় পুলিশি অভিযোগ দায়ের করেছিলেন। বলিউডের ফিল্ম অ্যাসোসিয়েশন CINTAA কে লিখিতভাবে অভিযোগ জানিয়েছিলেন। কিন্তু তার মতে কোনো অভিযোগেরই সঠিক পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি।

সম্প্রতি তাকে #MeToo মুভমেন্টের বিষয় প্রশ্ন করা হলে তিনি জানান, ‘২০০৮ সালে আমার সঙ্গে ঘটমান কাণ্ডের কোনো সঠিক পদক্ষেপ না নেওয়া পর্যন্ত ভারতে কিংবা বলিউডে #MeToo মুভমেন্ট শুরু হবে না।’ তার এই মন্তব্যের পরই ঝড় ওঠে টিনসেলে। একদল তনুশ্রীকে সমর্থন করছেন অন্যদিকে, আরেকদল নানা পাটেকারকে। আবার না ঘটনার সত্যতা যাচাই না হওয়া পর্যন্ত কোনো মন্তব্যই করতে নারাজ কেউ কেউ।

 

 

এবি/রায়হান