বিশেষ সংবাদ:

চবিতে স্থগিত হলো আবাসিক ছাত্রদের ধর্মঘট

Logoআপডেট: সোমবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৪

চবি প্রতিনিধি
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ২৯ দিন পর স্থগিত করা হয়েছে সাধারণ শিক্ষার্থীদের ব্যানারে ডাকা ধর্মঘট। সাংবাদিকদের কাছে রোববার পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

 

৩১ আগস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের শাহজালাল হল, শাহ আমানত হল ও সোহরাওয়ার্দী হলে আবাসিক শিক্ষার্থীদের উঠিয়ে দেয়ার দাবিতে  ধর্মঘটের ডাক দেয় আবাসিক ছাত্ররা।

 


শাহ আমানত হলের আবাসিক শিক্ষার্থী আশিকুর রহমান স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ছাত্র ধর্মঘট  ২৯তম দিনে পৌঁছেছে। বিভিন্ন হলে বৈধ ছাত্রদের অবস্থান নিশ্চিত করার দাবিতে হলের আবাসিক ছাত্ররা নিয়মতান্ত্রিকভাবে আন্দোলন শুরু করে।

 

যার মধ্যে রয়েছে ১৬ আগস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ে মানববন্ধন, ১৯ আগস্ট ভিসি বরাবর স্মারকলিপি, ২২ আগস্ট ক্যাম্পাসে লিফলেট বিতরণসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করা হয়েছে।

 


কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন আমাদের ন্যায়সঙ্গত দাবির প্রতি অধ্যাবধি কোনোরূপ কর্নপাত করেনি। ছয়টি ছাত্র হলের মধ্যে কার্যত তিনটি হল বৈধ ছাত্রদের জন্য বন্ধ করে দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ক্লাস-পরীক্ষা চালিয়ে যাচ্ছে। যা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন ও রীতিনীতির সম্পূর্ণ পরিপন্থী।

 

হলগুলো খুলে দেয়ার দাবি জানিয়ে বলা হয়, অবিলম্বে শাহজালাল, শাহ আমানত ও সোহরাওয়ার্দী হলের আবাসিক ছাত্ররা বন্ধ হলগুলো খুলে দিয়ে তাতে বৈধ ছাত্রদের তুলে দিতে হবে।


বলা হয়, ঈদ ও পুজার ছুটি উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ স্বাভাবিক রাখতে বিশ্ববিদ্যালয়ে আমাদের চলমান কর্মসূচি ১০ই অক্টোবর পর্যন্ত স্থগিত ঘোষণা করছি। এর মধ্যে আবাসিক ছাত্রদের উঠিয়ে দেয়া না হলে  ১১ অক্টোবর থেকে আরো কঠোর কর্মসূচি দেয়া হবে বলে জানা নো হয়েছে।