বিশেষ সংবাদ:

শুরু হচ্ছে আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র উৎসব

Logoআপডেট: বৃহস্পতিবার, ০২ আগস্ট, ২০১৮

এবি প্রতিবেদক 
দশম বারের মতো শুরু হতে যাচ্ছে আন্তর্জাতিক আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র উৎসব। চলচ্চিত্র জমা দেয়া যাবে ৫ আগস্ট পর্যন্ত। স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রের সর্বোচ্চ দৈর্ঘ্য হতে হবে ১৫ মিনিট।

আন্তর্জাতিক আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র উৎসবে বাংলাদেশ এবং বিশ্বের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের তরুণ নির্মাতাদের নির্বাচিত ডকুমেন্টারি, অ্যানিমেশন, ফিকশন এবং নন-ফিকশন প্রদর্শিত হবে। এসব চলচ্চিত্রের বিভিন্ন দিক বিবেচনায় রয়েছে পুরস্কার।

আসরে এবার যুক্ত হয়েছে ‘শর্টফিল্ম অন রিফিউজি’-শীর্ষক নতুন একটি ক্যাটাগরি। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় চলচ্চিত্র সংসদের আয়োজনে অনুষ্ঠিতব্য এ উৎসবে এবার রয়েছে ইউনাইটেড ন্যাশনস হাই কমিশনার ফর রিফিউজি (ইউএনএইচসিআর)।

যেকোনো ধরনের সংঘাত বা নিপীড়নের শিকার হয়ে স্বদেশ ত্যাগে বাধ্য হওয়া জনগোষ্ঠী-ই শরণার্থী। সাম্প্রদায়িক পরিচয়, জাতীয়তা, রাজনৈতিক মতবাদ, বর্ণ ইত্যাদি কারণে নিপীড়ন সংঘটিত হয়। শরণার্থী ও অভিবাসীদের মাঝে প্রধান পার্থক্যসূচক হয়ে দাঁড়ায় তাদের স্থান পরিবর্তনের স্বাধীনতা। এমন মানুষদের কথা চলচ্চিত্রে তুলে আনতেই ইউএনএইচসিআর-এর উদ্যোগে ‘শর্টফিল্ম অন রিফিউজি’ বিভাগটি এবার যুক্ত করা হয়েছে বলে জানিয়েছে উৎসব কর্তৃপক্ষ।

শরণার্থী বিষয়ক স্বল্পদৈর্ঘ্য-এর প্রামাণ্যচিত্র, স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র (ফিকশন), সাক্ষাৎকার, প্যানোরমাসহ যেকোনো সাব ক্যাটাগরির নির্মাণ জমা দেয়া যাবে। এরমধ্যে সেরা স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রটি পাবে ৩০০ ডলার। একই বিভাগের প্রতিযোগিতায় ২য় স্থান অধিকারীকে দেয়া হবে ২০০ ডলার।

আয়োজকরা জানান, ইতিমধ্যে কেউ যদি শরণার্থী বিষয়ক কোনো চলচ্চিত্র জমা দিয়ে থাকেন, তবে স্বয়ংক্রিয়ভাবে তা এই ‘শর্টফিল্ম অন রিফিউজি’ ক্যাটাগরিতে প্রতিযোগিতায় বিবেচিত হবে।