বিশেষ সংবাদ:

গ্রীষ্মের প্রচন্ড গরমে যে কাপড় পড়ে আপনি স্বাচ্ছন্দবোধ করবেন

Logoআপডেট: মঙ্গলবার, ০১ এপ্রিল, ২০১৪
এবি প্রতিবেদক
গ্রীষ্মের প্রচন্ড গরমে মানুষ সর্বদাই চাই পাতলা ও আরামদায়ক ফ্যাশনেবল পোশাক পরতে। আরামদায়ক পোশাকের জন্য কেউ কেউ ভিড় জমায় ফ্যাশন হাউসগুলোতে, কেউ আবার টেইলার্সের দোকান থেকে তৈরি করে নিচ্ছেন সুতি কাপড়ের পোশাক। কিন্তু প্রকৃত অর্থে কেমন হওয়া উচিত গরমের পোশাক? বিশেষজ্ঞদের অভিমত এই গরমে অবশ্যই কৃত্রিম এসব পোশাক এড়িয়ে চলতে হবে। পাতলা সুতি কাপড়ের পোশাক পরলে একদিক থেকে যেমন গরম কম লাগবে, অন্যদিকে আরামও লাগবে। ফলে স্বাচ্ছন্দ্যে কাজ করা যাবে। পাতলা তাঁত ও খাদি কাপড়ের পোশাকও এ সময় পরা যায়। গরম এলেই সুতি কাপড়ের প্রসঙ্গ চলে আসে। মেয়েদের উচিত পোশাক নির্বাচনের ক্ষেত্রে এই ধরনটিকে প্রাধান্য দেওয়া। আর রং নির্বাচনেও সতর্কতা অবলম্বন করা উচিত। এই গরমের পোশাকের ক্ষেত্রে সাদা, হালকা গোলাপি, হালকা বেগুনি, হালকা নীল, বাদামি, আকাশি, হালকা হলুদ, ধূসরসহ হালকা রঙের পোশাকগুলো প্রাধান্য পাবে। গরমে সাদা ও অন্যান্য হালকা রঙের পোশাক শুধু তাপ শোষণই করে না, সেই সঙ্গে চোখকে দেয় প্রশান্তি। তবে গরমকালে সাদা রঙের পোশাকের জয়জয়কার সবসময়ই। গরমে সুতি, তাঁত, খাদি কাপড় দিয়ে নিজের পছন্দ মতো পোশাক বানাতে চাইলে কাপড় কিনতে আপনি যেতে পারেন ঢাকার চাঁদনী চক, গাউছিয়া, নিউমার্কেট, গুলিস্তান, বসুন্ধরা শপিং মলে। এসব মার্কেট ছাড়াও সুতি কাপড় পাবেন ছোট-বড় অনেক মার্কেটে। তবে গরমে পোশাক নির্বাচনের ক্ষেত্রে স্বস্তির পাশাপাশি সৌন্দর্যটাকেও খেয়াল রাখতে হবে। এ জন্য সুতি কাপড়ের ওপর ব্লকপ্রিন্ট, এম্ব্রয়ডারি, স্ক্রিন প্রিন্ট ও হালকা সুতার কাজের পোশাক পরা যায়। এবার তাহলে দেখে নেওয়া যাক দেশীয় কিছু ফ্যাশন হাউসের গরমের আয়োজন সম্পর্কে।
বিসর্গ: গ্রীষ্মের এই উত্তাপ গরমে বিসর্গ নিয়ে এসেছে নতুন ডিজাইনের সব পোশাক। গ্রীষ্মের উপযোগী নিত্যনতুন ডিজাইনের আরামদায়ক পোশাক নিয়ে বিসর্গের আয়োজনে এনেছে ভিন্ন মাত্রা। পোশাক হিসেবে থাকছে টপস, থ্রিপিস, শাড়ি, ফতুয়া, পাঞ্জাবি ও অর্নামেন্স। সব ধরনের পোশাক খুচরা ও পাইকারি বিক্রি করা হয়। এসব পোশাক ক্রয় করতে যোগাযোগ করুন : আজিজ সুপার মার্কেট (তয়তলা), ঢাকা।
কারুপল্লী
বাংলাদেশ পল্লী উন্নয়ন বোর্ড পরিচালিত হস্ত ও কুটিরশিল্পের প্রতিষ্ঠান কারুপল্লী এনেছে বৈশাখের পোশাক। এসব পোশাকের মধ্যে আছে শাড়ি,সালোয়ার কামিজ, ফতুয়া, পাঞ্জাবি ও শিশুদের পোশাক। কারুপল্লীর বিক্রয় কেন্দ্র আছে কারওয়ান বাজারের পল্লী ভবনের নিচতলায়।
জেএম ক্ল্যাসিক ফ্যাশন : 'মনের রঙে সব সময়ে' স্লোগানকে সামনে রেখে জজ ভূঞা গ্রুপের অঙ্গ প্রতিষ্ঠান জেএম ক্ল্যাসিক ফ্যাশন নিয়ে এসেছে গরমের উপযোগী নতুন ডিজাইনের থ্রিপিস। এসব থ্রিপিসের ডিজাইনের ক্ষেত্রে দেশীয় ঐতিহ্য এবং নান্দনিকতা প্রাধান্য পেয়েছে। আর সবশ্রেণীর মানুষের ক্রয়ক্ষমতার উপযোগী করে তৈরি করা এসব পোশাক দেশব্যাপী পাওয়া যাচ্ছে। এ প্রসঙ্গে জজ ভূঞা গ্রুপের কর্ণধার ইঞ্জিনিয়ার ফায়জুর রহমান ভূঞা জুয়েল জানান, 'জেএম ক্ল্যাসিক ফ্যাশনের মাধ্যমে তারা অল্প দামে মানসম্পন্ন পোশাক তৈরি করে থাকেন। পাশাপাশি তাদের হোম টেঙ্টের পণ্যগুলোও আন্তর্জাতিক মানের। এসব পোশাক ক্রয় করতে চলে যান : জেবি টাওয়ার শেকেরচর (বাবুরহাট), নরসিংদী, ভুলতা গাউছিয়া, করটিয়া, টাঙ্গাইল। মোবাইল : ০১৭৪১২৮৭ ৫৬২, করপোরেট অফিস : ৪৮/এবি পুরানা পল্টন বায়তুল খয়ের বিল্ডিং (নবম তলা), ঢাকা-১০০০।
মেঘ
ফ্যাশন হাউস মেঘ নিয়ে এসেছে গরমের পোশাক। মেঘের বৈশাখের পোশাকের মধ্যে আছে- মেয়েদের শর্ট কামিজ, সালোয়ার কামিজ, ফতুয়া, ছেলেদের পাঞ্জাবি, ফতুয়া, টি-শার্ট ও শিশুদের ফতুয়া, পাঞ্জাবি এবং টি-শার্ট। মেঘের বিক্রয় কেন্দ্র আছে- শাহবাগের আজিজ সুপার মার্কেট,ধানমন্ডির মেট্রো শপিং মল ও মিরপুর অরজিনাল দশ নম্বরে (মিরপুর সাড়ে ১০)।