বিশেষ সংবাদ:

ভালো যাচ্ছে না সেলেনার দিনকাল!

Logoআপডেট: রবিবার, ১৪ অক্টোবর, ২০১৮

এবি  ডেস্ক

সেলেনা গোমেজ। নামকরা পপস্টার। আরেক পপতারকা জাস্টিন বিবারের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক ছেদের পর বেশ ভেঙ্গে পড়েছিলেন এই সুন্দরী তরুণী। তারপরও দ্রুতই নিজেকে সামলে নিয়ে নতুন করে সঙ্গীতে মনোনিবেশ করতে চেয়েছিলেন সেলেনা। কিন্তু তারপরও সময়টা খুব একটা ভালো যাচ্ছে না সেলেনার।

গত কয়েক সপ্তাহের ব্যবধানে দুবার হাসপাতালে গেছেন সঙ্গীতশিল্পী সেলেনা। তিনি মানসিকভাবেও ভেঙে পড়েছেন। শিগগিরই মনোরোগ চিকিৎসকের কাছে যাওয়ারও পরিকল্পনা করছেন সেলেনা। হাসপাতালে প্রতিবারের চিকিৎসায় সেলেনার রক্তের শ্বেতকণিকা কম ধরা পড়েছে। কিডনি প্রতিস্থাপন করা রোগীর এই পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা যায়। এ কারণে কয়েক সপ্তাহ ধরেই মানসিকভাবে সেলেনা বেশ বিপর্যস্ত ছিলেন।

দুবার হাসপাতালে যাওয়ায় তিনি বেশ আতঙ্কগ্রস্তও হয়ে পড়েন। তার কাছের লোকজন বলছেন, সেলেনা বুঝতে পেরেছেন যে তার এই মানসিক বিপর্যস্ততার জন্য পরিবারের লোকজনের সাহায্য দরকার। পরিবারের লোকজনও তার পাশে দাঁড়িয়েছেন, তাকে সাহায্য করছেন। এখন আগের চেয়ে সেলেনার অবস্থা ভালো এবং মানসিক চিকিৎসার জন্য শিগগিরই পুনর্বাসনকেন্দ্রে ভর্তি হবেন।

তার এই মানসিকভাবে ভেঙে পড়ার বিষয়টি নজরে আসে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম থেকে সাময়িক বিরতি নেওয়ার ঘোষণা দেওয়ার পর। তবে সেলেনার মানসিক রোগ এবারেই প্রথম ধরা পড়েনি। এর আগেও তিনি অবসাদ, বিষণ্ণতা ও দুশ্চিন্তার কারণে গান থেকে সাময়িক বিরতি নিয়েছিলেন। অনেকে ধারণা করছেন, সম্প্রতি সাবেক প্রেমিক জাস্টিন বিবারের সঙ্গে হেইলি বল্ডউইনের বিয়েও তার মানসিক যন্ত্রণার একটি কারণ হতে পারে।

গত বছরের মে মাসে কিডনি প্রতিস্থাপন করা হয় সেলেনার শরীরে। বেশ কিছুদিন সেলেনা তার অস্ত্রোপচারের ব্যাপারটি গোপন রেখেছিলেন। গত সেপ্টেম্বরে তিনি ঘোষণা দেন যে লুপাস রোগে আক্রান্ত হওয়ায় তাঁর কিডনি প্রতিস্থাপন করতে হয়েছে। বান্ধবী অভিনেত্রী ফ্রান্সিয়া রেইসা তাকে একটি কিডনি দান করেছেন।

 

এবি/রায়হান