বিশেষ সংবাদ:

সোনার বাজারে ধস!

Logoআপডেট: রবিবার, ১৩ নভেম্বর, ২০১৬

এবি প্রতিবেদক
বিশ্ববাজারে সোনার দামে ধস পড়েছে। সেই প্রভাব পড়েছে বাংলাদেশেও। এখন প্রতি ভরি ভালো মানের সোনা পাওয়া যাবে আগের চেয়ে এক হাজার ৪৫৮ টাকা কমে। সোনার সঙ্গে রুপার দরও কমেছে ভরিতে ২৯২ টাকা।

 

নতুন দর সোমবার থেকে কার্যকর হবে বলে রোববার সন্ধ্যায় বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতির (বাজুস) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে। বিশ্ববাজারের সঙ্গে সমন্বয় করে স্থানীয় বাজারে সোনার দাম কমানো হয়েছে কমানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন সোনা ব্যবসায়ীদের সংগঠন বাজুসের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ কুমার আগরওয়ালা। তিনি ‘আমার বিনোদন’কে বলেন, ‘আমরা সব সময়ই আন্তর্জাতিক বাজারের সঙ্গে আমাদের স্থানীয় বাজারের দর সমন্বয় করি।

 

সাম্প্রতিক সময়ে বিশ্ববাজারে সোনার দাম কমেছে। তার সঙ্গে সমন্বয় করে আমরা আমাদের বাজারেও কমিয়েছি।’ এর আগে চলতি বছরের ২৬ জুন সর্বশেষ সোনার দর ভরিতে ১ হাজার ২২৫ টাকা বাড়ানো হয়েছিল। তার এক সপ্তাহ আগে এক হাজার ২২৫ টাকা বাড়ানো হয়েছিল। সোমবার থেকে ২২ ক্যারেট মানের প্রতি ভরি (১১.৬৬৪ গ্রাম) সোনা ৪৬ হাজার ৮৮৯ টাকায় বিক্রি হবে।

 

তা রোববার পর্যন্ত ৪৮ হাজার ৩৪৭ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছিল। নতুন দর অনুযায়ী, প্রতি গ্রাম ২২ ক্যারেট মানের সোনার দর পড়বে ৪ হাজার ২০ টাকা। রোববার পর্যন্ত দর ছিল ৪ হাজার ১৪৫ টাকা। সোমবার থেকে ২১ ক্যারেট মানের প্রতি ভরি সোনা বিক্রি হবে ৪৪ হাজার ৬৭৩ টাকায় (প্রতি গ্রাম ৩৮৩০ টাকা)। ১৮ ক্যারেটের দাম হবে ৩৮ হাজার ৪৯১ টাকা (প্রতি গ্রাম ৩৩০০ টাকা)।


রোববার পর্যন্ত প্রতি ভরি ২১ ক্যারেটের সোনা ৪৬ হাজার ১৮৯ টাকা এবং ১৮ ক্যারেট ৩৯ হাজার ৫৯৯ টাকায় বিক্রি হচ্চিল। আর সনাতন পদ্ধতিতে প্রতি ভরি সোনা বিক্রি হবে ২৬ হাজার ১১ টাকায় (প্রতি গ্রাম ২২৩০ টাকা)। এর ভরি ছিল ২৭ হাজার ৫২৭ টাকায়। প্রতি ভরি ২২ ক্যারেটে ৯১ দশমিক ৬ শতাংশ, ২১ ক্যারেটে ৮৭ দশমিক ৫ শতাংশ, ১৮ ক্যারেটে ৭৫ শতাংশ বিশুদ্ধ সোনা থাকে। সনাতন পদ্ধতির সোনা পুরনো স্বর্ণালঙ্কার গলিয়ে তৈরি হয়। এ ক্ষেত্রে কত শতাংশ বিশুদ্ধ সোনা মিলবে, তার কোনো মানদ- নেই। রুপার দর কমেছে ভরিতে ২৯২ টাকা। সোমবার থেকে প্রতি ভরি রুপা ৯৯৩ টাকায় (প্রতি গ্রাম ৮০ টাকা) বিক্রি হবে। রোববার পর্যন্ত এর দর ছিল এক হাজার ২২৫ টাকা।