বিশেষ সংবাদ:

বাতিল ৫০০ টাকার নোট আপাতত চলুক, পরামর্শ মমতার

Logoআপডেট: শুক্রবার, ১৮ নভেম্বর, ২০১৬

এবি ডেস্ক
ভারতে ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট বাতিলের জেরে দেশের কৃষক-শ্রমিক থেকে শুরু করে রফতানিকারক এবং বিদেশী পর্যটকরা ভীষণ দুর্ভোগে পড়েছে।

এমতাবস্থায় বাতিল ৫০০ টাকার নোট আপাতত চালু রাখা হোক বলে কেন্দ্রকে প্রস্তাব দিয়েছে কলকাতার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই সঙ্গে ১০০, ৫০ ও ১০ টাকার নোটের যথেষ্ট জোগান রেখে মানুষের দুর্ভোগ সামাল দিতে সরকারকে পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। তবে ১০০০ টাকার নোট বাতিল নিয়ে নতুন করে আপত্তি জানাননি মমতা।

নোট বাতিল নিয়ে প্রথম থেকেই কেন্দ্রের বিরুদ্ধে আক্রমণাত্মক অবস্থানে রয়েছেন তিনি। শুক্রবার দিল্লি অভিযানের তৃতীয়দিনে তিনি বলেন, ‘‘আমার কিছু নির্দিষ্ট পরামর্শ রয়েছে। তা গ্রহণ করলে সরকার পরিস্থিতি সামাল দিতে পারবে ও মানুষের দুর্ভোগ কমবে।’’ সেই প্রস্তাবেই মমতা বাতিল হওয়া ৫০০ টাকার নোট চালু রাখার পরামর্শ দিয়েছেন।  তিনি চান, নতুন নোটের পাশাপাশি, বাতিল নোটও বাজারে থাকুক। ৩০ ডিসেম্বরের মধ্যে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে ১০০০ টাকার নোট প্রত্যাহার করা যেতে পারে বলেও মনে করেন তিনি।


মমতা বৃহস্পতিবার নোট বাতিলের সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের দাবি তুলেছিলেন। কিন্তু কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি সেই দাবি খারিজ করে দিয়েছেন। কেন্দ্রের কড়া সমালোচনা করে তৃণমূলনেত্রী বলেন, ‘‘এই সরকার শুধু ভাষণ দিচ্ছে। অ্যাকশন নেই অথচ অ্যানাউন্সমেন্ট আছে! পদক্ষেপ করুন। আমরা মানুষের সঙ্গে আছি। এটা মানুষের সবচেয়ে বড় লড়াই।’’

নোট বাতিলের সিদ্ধান্তের পর মোদীর সরকারকে চাপে রাখতে দিল্লি পর্যন্ত ছুটেছেন মমতা। সংসদের অধিবেশনেও তৃণমূল সাংসদদেরাও একই পথে চলবেন। সেক্ষেত্রে অন্য দলের সঙ্গে থাকার নির্দেশও দেওয়া হয়েছে তাঁদের।

নোট বাতিলের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে এদিন লোকসভায় তৃণমূলের দলনেতা সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়ের আনা মুলতুবি প্রস্তাব খারিজ করে দেন স্পিকার। আগামী সপ্তাহে কলকাতায় দলীয় বৈঠকে পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে পরবর্তী পদক্ষেপ স্থির করবেন তৃণমূল নেতৃত্ব।