বিশেষ সংবাদ:

আজ প্রাচ্যনাটের ‘লাল যাত্রা’

Logoআপডেট: রবিবার, ২৫ মার্চ, ২০১৮

এবি প্রতিবেদক
২৫ মার্চ বাঙালির ইতিহাসে এক ভয়াল কালরাত্রি। ১৯৭১ সালের এই রাতে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী ঝাঁপিয়ে পড়ে নিরস্ত্র বাঙালিদের উপর। হত্যা করে ঢাকা শহরের হাজারো মানুষকে। বেদনার্ত ও ভয়াবহ এই রাতকে স্মরণ করে প্রতি বছর লাল যাত্রার আয়োজন করে তারুণ্যদীপ্ত থিয়েটার সংগঠন প্রাচ্যনাট্য। এবারও তার ব্যতিক্রম নয়।

যথারীতি আজ ২৫ মার্চ বিকেল সাড়ে ৫টায় প্রাচ্যনাট টিএসসির স্বোপার্জিত স্বাধীনতা চত্বর থেকে স্মৃতি চিরন্তন চত্বর (ফুলার রোড সড়কদ্বীপ) পর্যন্ত বিসর্জনের লালাবরণে হেঁটে যাবে। কণ্ঠে থাকবে দেশের গান। গত পাঁচ বছর ধরে নাট্য সংগঠনটি নিয়মিত ‘লাল যাত্রা’র মাধ্যমে শহিদদের স্মরণ করে আসছে। ‘লাল যাত্রা’ আয়োজনটি সবার জন্য উন্মুক্ত।

এই আয়োজনটির মূল ভাবনা দলটির অন্যতম সদস্য রাহুল আনন্দের। ২৫ মার্চ ভয়াল কালরাতের শহিদের তাজা রক্তে ভিজে রাঙা হলো পলাশ, শিমুল- হরেক রঙের ফুল। দীর্ঘ কালরাত্রির প্রাক্কালে নাট্যদলটি পূর্ব-প্রজন্মের লাল রক্তের পথ ধরে স্বাধীনচিত্তে হেঁটে চলে ঐক্যের বন্ধনে লাল যাত্রায়’।

এ বিষয়ে জলের গানের অন্যতম সংগঠক ও প্রাচ্যনাটের নাট্যশিল্পী রাহুল আনন্দ বলেন, ‘২৫ মার্চ ভয়াল কালোরাতকে স্মরণ করে স্বোপার্জিত স্বাধীনতা চত্বর (টিএসসি) থেকে স্মৃতি চিরন্তন চত্বর পর্যন্ত আমরা হেঁটে যাব। এ সময় ধন ধান্য পুষ্প ভরাসহ অংশগ্রহণকারী সবার কণ্ঠে বিভিন্ন দেশাত্ববোধক গান থাকবে। এছাড়াও সন্ধ্যায় স্মৃতি চিরন্তন চত্বরে প্রদীপ প্রজ্বলন করা হবে। আমরা আশা করবো নাটক ও সঙ্গীতের সঙ্গে যুক্ত সবাই প্রতিবছরের মত এবারও লালযাত্রায় যোগ দিয়ে আমাদের সঙ্গে কণ্ঠ মেলান। এই অনুষ্ঠানে সবাইকে লাল কিংবা কালো পোশাক পরে আসার আহ্বান করছি।’