বিশেষ সংবাদ:

জামদানি বয়নশিল্প সমৃদ্ধ করা আমাদের নৈতিক দায়িত্ব : সংস্কৃতিমন্ত্রী

Logoআপডেট: রবিবার, ০১ জুলাই, ২০১৮

এবি প্রতিবেদক 
সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর এমপি বলেছেন, ‘জামদানি শিল্প বিশ্বের দরবারে আমাদের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করেছে এবং এর ব্যাপক চাহিদাও রয়েছে।জামদানি বয়নশিল্প আমাদের গর্বের ধন ও ঐতিহ্যের অংশ। এটিকে জিইয়ে রাখা ও সমৃদ্ধ করা আমাদের নৈতিক দায়িত্ব। জামদানি বয়নশিল্পীরা তাদের দুই হাতের ছোঁয়ায় যে অসাধারণ শিল্পকর্ম তৈরি করেন -তা এককথায় অসাধারণ, তার কোন তুলনা হয় না।’
আজ বিকালে রাজধানীর বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘর-এর প্রধান মিলনায়তনে বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘর ও বাংলাদেশ জাতীয় কারুশিল্প পরিষদের যৌথ উদ্যোগে “ঐতিহ্যবাহী জামদানী নকশা” শীর্ষক অনন্য নকশা গ্রন্থের প্রকাশনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

প্রধান অতিথি আরো বলেন, ‘জামদানি শিল্প বিশ্বের দরবারে আমাদের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করেছে এবং এর ব্যাপক চাহিদাও রয়েছে। অথচ জামদানি শিল্পীরা ভালো অবস্থায় নেই। সরকার কৃষি, বিদ্যুৎ ও শিক্ষাসহ বিভিন্ন সেক্টরে ভর্তুকি প্রদান করছে। একইভাবে সরকারিভাবে জামদানি বয়নশিল্পীদের ভর্তুকি দেয়া যায় কিনা- তা ভেবে দেখা হবে।’
তিনি বলেন, ‘জামদানি বয়নশিল্পীদের সমস্যা নিরসন ও স্বার্থ সংরক্ষণ তথা জামদানি শিল্পের উন্নয়ন ও প্রসারে শিল্প মন্ত্রণালয় ও বাংলাদেশ কারুশিল্প পরিষদের সাথে বৈঠকের ব্যবস্থা করা হবে। এ খাতে প্রয়োজনীয় গবেষণা কাজে সহযোগিতা প্রদান করবে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়।’

বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘর-এর মহাপরিচালক মো. আব্দুল মান্নান ইলিয়াস-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত মার্শিয়া স্টিফেন ব্লুম বার্নিকাট। গ্রন্থটি সম্পর্কে আলোচনা করেন বাংলাদেশ জাতীয় কারুশিল্প পরিষদের সভাপতি মো. রফিকুল ইসলাম, গ্রন্থটির প্রধান গবেষক চন্দ্র শেখর সাহা এবং বাংলাদেশ জাতীয় কারুশিল্প পরিষদের প্রকল্প সমন্বয়ক শাহিদ হোসেন শামীম।

গ্রন্থটি সম্পর্কে পর্যালোচনা করেন বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘর-এর সাবেক মহাপরিচালক ফয়জুল লতিফ চৌধুরী। স্বাগত বক্তৃতা করেন বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘর এর কিপার শিহাব শাহরিয়ার। প্রকল্পটিতে আর্থিক পৃষ্ঠপোষকতা প্রদান করছে মার্কিন রাষ্ট্রদূত-এর সংস্কৃতি সংরক্ষণ তহবিল।