বিশেষ সংবাদ:

যাত্রাশিল্পে নতুন মাত্রা: কর্মশালাভিত্তিক পালা ও সেমিনার

Logoআপডেট: বৃহস্পতিবার, ২৪ নভেম্বর, ২০১৬

এবি প্রতিবেদক
দেশব্যাপী যাত্রাশিল্প চর্চার সার্বিক মান উন্নয়নের লক্ষ্যে যাত্রাশিল্প উন্নয়ন নীতিমালা ২০১২ এর আলোকে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি এ পর্যন্ত দেশের মোট ৮৮টি যাত্রাদলকে নিবন্ধিত করাসহ বেশ কিছু কর্মসূচী গ্রহণ করেছে।

 

তারই ধারাবাহিকতায় এবার যাত্রাশিল্পীদের জন্য ০২টি কর্মশালা আয়োজন করা হয়। একটি যাত্রাদলের নৃত্য শিল্পীদের জন্য নৃত্য প্রশিক্ষণ কার্যক্রম এবং অন্যটি যাত্রাদলের অভিনয়, সঙ্গীতসহ সার্বিক বিষয়ে প্রশিক্ষণ কার্যক্রম।

১৮ থেকে ২৫ নভেম্বর ২০১৬, ৮দিনব্যাপী কর্মশালা ২টি আয়োজিত হয়। কর্মশালার মধ্য দিয়ে ৩০মিনিটের ৫টি কর্মশালাভিত্তিক পালা নির্মাণ করা হয়, যা কর্মশালার সমাপনী দিন ২৫ নভেম্বর ২০১৬ তারিখ মঞ্চস্থ হবে। অনুষ্ঠান আয়োজনে একাডেমির জাতীয় নাট্যশালার স্টুডিও হলে  বেলা ৩টায় ‘যাত্রাশিল্পে নারী’ শীর্ষক কর্মশাল শীর্ষক সেমিনার এবং বিকাল ৫টায় মঞ্চায়ন করা হবে প্রযোজনা ভিত্তিক ৫টি পালা।

বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকী’র সভাপতিত্বে উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন নাট্যব্যাক্তিত্ব এস এম মহসীন, নাট্যকলা ও চলচ্চিত্র বিভাগের পরিচালক বদরুল আনাম ভূইয়া ও ৫টি ওয়ার্কশপ প্রোডাকশনের পরিচালকবৃন্দ।

এছাড়াও যাত্রাদল নিবন্ধনের লক্ষ্যে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির আয়োজনে নাট্যকলা ও চলচ্চিত্র বিভাগের ব্যবস্থাপনায় ২৩, ২৪ ও ২৬ নভেম্বর ২০১৬ পর্যন্ত জাতীয় নাট্যশালার স্টুডিও থিয়েটার হলে তিনদিনব্যাপী ‘৮ম যাত্রা উৎসব ২০১৬’ আয়োজন করা হয়েছে।

 

২৩, ২৪ ও ২৬ নভেম্বর ২০১৬ সকাল সাড়ে ১১টা হতে রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত ১৯টি যাত্রাদলের যাত্রাপালা মঞ্চায়নের জন্য সময় নির্ধারণ করা হয়েছে। যাত্রাশিল্প উন্নয়ন কমিটির ৩জন সম্মানিত সদস্য উপস্থিত থেকে যাত্রাপালা মূল্যায়ন করবে এবং তাদের মূল্যায়নের ভিত্তিতে যাত্রাদলগুলোকে নিবন্ধন প্রদান করা হবে। উল্লেখ্য, বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি ইতোমধ্যে ৭টি পর্যায়ে ৮৮টি যাত্রাদলকে নিবন্ধন প্রদান করেছে।