বিশেষ সংবাদ:

মুনীর চৌধুরীর ‘রক্তাক্ত প্রান্তর’ যাত্রাপালায় রুপায়ন

Logoআপডেট: মঙ্গলবার, ০৮ জুলাই, ২০১৪

এবি প্রতিবেদক
১৭৬১  সালে সংঘটিত পানি পথের তৃতীয় যুদ্ধের পটভূমিকায় বাংলা নাটকের অন্যতম পুরোধা ব্যক্তিত্ব মুনীর চৌধুরী রচনা করেন নাটক ‘রক্তাক্ত প্রান্তর’।

সম্প্রতি মুনীর চৌধুরীর বহুল আলোচিত এ নাটকটি বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমীর পরীক্ষণ থিয়েটার হলে মঞ্চায়ন হয় যাত্রাপালাকারে। এতে মারাঠা বাহিনীর নেতৃত্ব দেন বালাজী রাও পেশবা, মুসলিম শক্তির পক্ষে আহমদ শাহ আবদানী। মুনীর চৌধুরী  এ নাটকের ভূমিকায় লিখেছেন : যত হিন্দু আর যতো মুসলমান- এই যুদ্ধে প্রাণ দেয়, পাক ভারতের ইতিহাসে তা বিরল। পানিপথের তৃতীয় যুদ্ধেও অব্যবহিত ফলাফল যেমন মানবিক দৃষ্টিতে বিষাদপূর্ণ, তার পরবর্তীকালীন পরিনামও তেমনি জাতীয় জীবনের জন্য গ্লানিকর। পালাটি এরই মধ্যে দর্শকমহলে ব্যপক আলোচনায় এসেছে। শিল্পকলা একাডেমীর মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকীর তত্ত্বাবধানে এ পালা নির্দেশনা দেন সুলতান সেলিম।
সহকারী নির্দেশক শহীদ আহমেদ মিঠু ও রিক্তা সুলতানা। প্রযোজনা ব্যবস্থাপক- পূর্ণলাক্ষ চাকমা। বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন: আহমদ শাহ আবদালী- মিলন কান্তি দে, জোহরা বেগ ( মন্নু বেগ )- শর্মীমালা, ইব্রাহিম কার্দি- জাফরুল স্বপন, নবাব নজীবদ্দৌলা- শিশির রহমান, নবাব সুজাউদ্দৌলা- মিথুন সরকার, জরিনা বেগম- জয়িতা মহলাবীশ, হিরনবালা- বনশ্রী অধিকারী, আতা খাঁ- মেহরাব আলী, দীলিপ- সুনীল দে, বশির খাঁ- আবুল কালাম আজাদ, রহিম শেখ-কমল, বিবেক- সত্য দাস। সৌজন্যে- যাত্রালোক।