বিশেষ সংবাদ:

গণস্বাক্ষরতা অভিযানে সচেতনতামূলক যাত্রা প্রদর্শনী

Logoআপডেট: শুক্রবার, ২৩ জানুয়ারি, ২০১৫

এবি প্রতিবেদক
বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা গণস্বাক্ষরতা অভিযানের সহযোগিতায় বিশিষ্ট যাত্রানট মিলন কান্তি দে’র সার্বিক পরিচালনায় ২০১১ সাল থেকে দেশব্যাপী অনুষ্ঠিত হচ্ছে শিক্ষা সচেতনতামূলক যাত্রা প্রদর্শনী।

 

দেশের একমাত্র গবেষণামূলক ও পরিবেশবাদী যাত্রা সংগঠন দেশ অপেরার আয়োজনে গণস্বাক্ষরতা অভিযানের গৃহীত সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এবছরের নির্ধারিত ৯টি প্রদর্শনীর মধ্যে ৪টি অনুষ্ঠিত হয় গত ডিসেম্বরে- ঠাকুরগাঁও, সিরাজগঞ্জ, বগুড়া ও চট্রগামে।

 

সেই ধারাবাহিকতায় আগামী ২৫ জানুয়ারি রোববার রাজধানীর সবুজবাগস্থ রাজারবাগে অভয় বিনোদনী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে প্রদর্শিত হবে যাত্রাপালা ‘মা - মাটি - মানুষ’। অনুষ্ঠান উদ্বোধন করবেন বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি চিত্তরঞ্জন দাস। ভৈরবনাথ গঙ্গোপাধ্যায় রচিত ও এম আলীম নির্দেশিত এ পালাটি পরিবেশন করবে আকাংখা শিল্প গোষ্ঠী। একই দিনে নাটোর সদর থানার সাতনী বালিকা বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে উত্তরণ শিল্পী গোষ্ঠী মঞ্চায়ন করবে ‘জীবন নদীর তীরে’। রঞ্জন দেবনাথ রচিত এ পালার নির্দেশনা দিয়েছেন রাবনেওয়াজ খান মেজর। ২৭ জানুয়ারি মাদারীপুরের কদমবাড়িতে আয়োজনের অংশ হিসেবে প্রদর্শিত হবে চৈতালী অপেরার ‘মা - মাটি মানুষ’। ২৮ জানুয়ারি একই পালা মঞ্চায়িত হবে কিশোরগঞ্জে এবং ৩১ জানুয়ারি নারায়নগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে লোকশিল্প মেলায় দেশ অপেরা মঞ্চায়ন করবে দুটি পালা ‘ময়না- মতির সংসার’ ও ‘গঙ্গা থেকে বুড়িগঙ্গা’। এ বিষয়ে সুস্থধারার যাত্রাশিল্পচর্চার রুপকার মিলন কান্তি দে বলেন, গণস্বাক্ষরতা অভিযানের নির্বাহী পরিচালক রাশেদা কে চৌধুরীর আন্তরিক আগ্রহে বাংলাদেশে শিক্ষামূলক যাত্রানুষ্ঠানের একটি ধারা চালু হয়েছে।

 

এ ধরনের পালা মঞ্চায়নের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য হচ্ছে শিশুদের স্কুলে ভর্তি, ঝরেপড়া রোধ এবং প্রাথমিক শিক্ষা সমাপ্তিকরণ বিষয়ে সচেতনতা সৃষ্টি করা। যাত্রশিল্পে মাধ্যমে গণসচেতনতার কাজগুলো সহজেই সুফল বয়ে আনতে সক্ষম বলে যাত্রার আঙ্গিকে গণসচেতনতায় শিক্ষামূলক নানা তথ্যবার্তা ছড়িয়ে দেওয়ার প্রয়াস রাখা হচ্ছে। এ ধরণের যাত্রাপ্রদর্শনী সুস্থ যাত্রাপালার শৈল্পিক আবহ সৃষ্টিও সহায়ক। যা তথাকথিত অশ্লীলযাত্রাকে ধীক্কার দিয়ে হাজার বছরের ঐতিহ্যবহ রুচীশীল যাত্রা প্রদর্শনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে।